শিরোনাম :

মঈন আলীর হ্যাটট্রিক


মঙ্গলবার, ১ আগস্ট ২০১৭, ০৮:৫৩ পূর্বাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

মঈন আলীর হ্যাটট্রিক

কেনিংটন ওভাল ক্রিকেট গ্রাউন্ডের শততম  ম্যাচে দারুণভাবে জয়টা আশা করছিল ইংল্যান্ড। হলোও সেটা। বেন স্টোকসের অলরাউন্ড পারফরম্যান্স, রোনাল্ড জোন্সের বিধ্বংসী বোলিংয়ের কারণে চতুর্থ দিন শেষে ইংল্যান্ডের জয়টাকেই সম্ভব মনে হচ্ছিল। তবে ইংলিশদের বাধা হয়ে একাই দাঁড়িয়ে ছিলেন প্রোটিয়া অধিনায়ক ডিল এলগার।

পঞ্চম দিন দক্ষিণ আফ্রিকা টিকতে পারল মাত্র ৪০ ওভারের মতো। তাতে এলগার শতক পেলেও ম্যাচটা বাঁচাতে পারল না সফরকারীরা। বাকি ছয় উইকেটের মধ্যে মঈন আলী একাই তুলে নিলেন চারটি, বাকি দুটি গেল রোনাল্ড জোন্সের পকেটে। ২৩৯ রানের জয় নিয়ে সিরিজে এগিয়ে গেল ইংল্যান্ড। ৪ আগস্ট ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে শুরু হবে সিরিজের শেষ টেস্ট।

পঞ্চম দিনে জয়ের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকার প্রয়োজন ছিল ৩৭৫ রান। জয় নয়, ড্রয়ের দিকই নজর ছিল প্রোটিয়াদের। দিনের প্রথম ১২ ওভার বেশ ভালোই খেলছিলেন টিম্বা বাভুমা ও ডিন এলগার। তবে শেষ দিনের প্রথম আঘাতটা হানেন রোনাল্ড জোন্স। ৯৭ বলে ৩২ রান করা টিম্বা বাভুমাকে লেগ বিফোরে ফাঁদে ফেলেন এই পেসার। পরের বলে ভারনন ফিল্যান্ডারকেও আউট করে প্রোটিয়াদের বড় হারের ইঙ্গিত দেন তিনি।

তবে প্রোটিয়াদের বড় চমকটা দেন মঈন আলী। ৭৬ ওভারের পঞ্চম বলে ইংলিশদের পথে কাঁটা হয়ে থাকা ডিন এলগারকে ফেরান এই অফ স্পিনার। ২২৮ বলে ১৩৬ রান করা এলগার ফেরার পরই দক্ষিণ আফ্রিকার হারটা নিশ্চিত হয়ে যায়। পরের বলে ফেরান কাগিসো রাবাদাকে। ওভার শেষ হওয়ায় থামতে হয় মঈনকে। বেন স্টোকসের করা পরের ওভারটা কোনও মতে পার করেন কেশব মহারাজ। তবে ৭৮ ওভারের প্রথম বলে মঈনকে আর থামাতে পারেননি মরনে মরকেল। বলটা গিয়ে লাগে মরকেলের প্যাডে। ইংলিশ ক্রিকেটারদের আবেদনে সাড়া দেননি আম্পায়ার। এরপই রিভিউ চেয়ে বসেন রুট। দেখা যায়, পরিষ্কারভাবে আউট ছিলেন মরকেল। সিদ্ধান্ত বদলাতে বাধ্য হন আম্পায়ার। এরই উল্লাসে মেতে ওঠেন মঈন।

১৩তম ইংলিশ বোলার হিসেবে হ্যাটট্রিক করলেন মঈন। ১৮৮৩ সালে প্রথম ইংলিশ বোলার হিসেবে হ্যাটট্রিক করেন বিলি বেটস। এরপর জনি বিগ্রস, জর্জ লেম্যান, জ্যাক হর্নি, মরিসম অ্যালম, টম গোদার্ড, পিটার লোডার, ডমিনিক কর্ক, ড্যারেন গফ, ম্যাথু হগার্ড, রায়ান সাইডবটম ও স্টুয়ার্ট ব্রড এই কীর্তি অর্জন করেন।

এর আগে প্রথম ইনিংসে ইংল্যান্ডের করা ৩৫৩ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংস গুটিয়ে গিয়েছিল মাত্র ১৭৫ রানে। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং করতে নেমে স্কোর বোর্ডে ৩১৩ রান তোলে ইংল্যান্ড। ফলে দ্বিতীয় ইনিংসে জয়ের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকার লক্ষ্য দাঁড়ায় ৪৯২ রান।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন