শিরোনাম :

ব্যাটিং-বোলিং আর ফিল্ডিং নিয়ে হতাশা সুজনের


শনিবার, ৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০৮:৫৫ পূর্বাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

ব্যাটিং-বোলিং আর ফিল্ডিং নিয়ে হতাশা সুজনের

ক্রীড়া ডেস্ক: চট্টগ্রাম টেস্টে প্রথম ইনিংসে ৫০০ এর উপর রান তোলার পর শ্রীলঙ্কার ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই টেস্টে তাদের সময়ের সেরা ওপেনার করুনারত্নকে ফিরিয়ে দেওয়ার পর সবাই ভেবেছিল এই টেস্টে বাংলাদেশই জিতছে। একই ভাবনা ছিল দলের ভেতরেও।

বাংলাদেশের ৫১৩ রানের বিপরীতে শ্রীলঙ্কা তৃতীয় দিন শেষে মাত্র ৩ উইকেট হারিয়ে তুলে নিয়েছে ৫৩৪ রান। চতুর্থদিনের মধ্যাহ্ন বিরতি পর্যন্ত ব্যাটিংটা টেনে নিতে পারলে উল্টো বাংলাদেশই পড়ে যাবে চাপে। এমন পরিস্থিতিতে তো ড্র’ কামনাই বাংলাদেশের একমাত্র লক্ষ্য হতে পারে।

দলের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজনও মানেন সেটি।  তৃতীয় দিন শেষে সংবাদ সম্মেলনে এসে দিলেন সোজাসাপ্টা স্বীকারোক্তি।
     
তিনি বলেন, জেতার জন্য শুরু করেছিলাম। কিন্তু এখন ওরা (শ্রীলংকা) বেটার পজিশনে আছে।  কারণ তাদের হাতে সাতটা উইকেট আছে। দুটো দিন আছে।  উইকেট এখনও ব্যাটিংয়ের জন্য ভালো। তাই ম্যাচের কন্ট্রোলটা ওদের হাতেই আছে।

‘তবে তাদের কতো দ্রুত আউট করতে পারি সেই পরিকল্পনা করছি আমরা। চতুর্থ দিনের প্রথম ঘণ্টায় দুই-তিনটা উইকেট নিতে পারলে আমরাও হয়তো ম্যাচের কন্ট্রোল নিতে পারবো।  তবে এজন্য আমাদের আরও ভালো বোলিং-ব্যাটিং করতে হবে।’

সুজন বলেন, ‘কালকের দিনটা বলে দেবে কারা ম্যাচের কন্ট্রোল নিচ্ছে।  শ্রীলঙ্কা কতো সময় ব্যাটিং করবে তার উপরই সব নির্ভর করছে।  হয়তো জেতা থেকে ম্যাচটা ড্রয়ের দিকেই যাবে। এটা বিশ্বাস করি আর কি।’

তিন বিভাগ অর্থাৎ ব্যাটিং-বোলিং আর ফিল্ডিং নিয়ে হতাশা ঝরেছে খালেদ মাহমুদের কণ্ঠে।

তিনি বলেন, কয়েকটি জুটি হয়েছে, তবে আমাদের প্রত্যাশা মতো ব্যাটিং হয়নি। কারণ উইকেট ব্যাটিং বান্ধব। তাই ব্যাটিং আরেকটু ভালো করা যেত। সুযোগ মিস করেছি। ফাস্ট ডে তে ৩৭৪ করলাম। পরের দিনে উইকেট আরও কম পড়লে ভালো হতো। ছয়শ-সাড়ে ছয়শ রান তুলতে পারলে ভালো হতো। আর আমার মনে হয় না কিছু সময় আমরা ভালো বোলিং করেছি। সত্যি বলতে গেলে ভালো করেনি। আরেকটু ভালো করা যেত।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন