শিরোনাম :

জয়ের জন্য বাংলাদেশের লক্ষ্য ২১১


রবিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০৬:৪২ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

জয়ের জন্য বাংলাদেশের লক্ষ্য ২১১

ক্রীড়া ডেস্ক: সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হতে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ। সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্বাগতিকরা।

ব্যাটিংয়ে নেমে শ্রীলংকার  স্কোর: শ্রীলঙ্কা ২০ ওভারে ২১০/৪

পরপর দুই ওভারে দুই উইকেট নিল বাংলাদেশ। থিসারা পেরেরাকে আবু জায়েদ ফেরানোর পর মুস্তাফিজুর রহমান বিদায় করলেন কুসল মেন্ডিসকে। ব্যাটের কানায় লেগে আকাশে উঠে যাওয়া ক্যাচ সীমানায় মুঠোয় নেন মেহেদি হাসান। ৪২ বলে ৬টি চার ও তিনটি ছক্কায় ৭০ রান করে ফিরেন মেন্ডিস। টি-টোয়েন্টিতে এটি তার সর্বোচ্চ।

থিসারা পেরেরার ঝড় থামিয়ে নিজের প্রথম উইকেট নিয়েছেন আবু জায়েদ। ডানহাতি এই পেসার ভেঙেছেন ৫১ রানের জুটি। লং অফ দিয়ে জায়েদকে উড়াতে চেয়েছিলেন থিসারা। টাইমিং করতে পারেননি। ক্যাচ হাতে জমান সৌম্য সরকার। ১৭ বলে তিনটি চার ও একটি ছক্কায় থিসারা ফিরেন ৩১ রান করে।

তৃতীয়বারে গেলেন দানুশকা গুনাথিলাকা। তাকে ফিরিয়ে ১১ ওভার স্থায়ী ৯৮ রানের উদ্বোধনী জুটি ভেঙেছেন সৌম্য সরকার। ১৫ ও ২৮ রানে দুইবার জীবন পাওয়া গুনাথিলাকা ফিরেন ৪২ রান করে। তার ৩৭ বলের ইনিংস গড়া তিনটি ছক্কা ও দুটি চারে।

নিজের প্রথম ওভারে আঘাত হানেন সৌম্য। তাকে লং অফ দিয়ে উড়াতে চেয়েছিলেন গুনাথিলাকা। টাইমিং করতে পারেননি। সহজ ক্যাচ মুঠোয় নেন তামিম ইকবাল।

এই সিরিজের আগে একটিও টি-টোয়েন্টি ফিফটি ছিল না কুসল মেন্ডিসের। দুই ম্যাচে দুটি হাফ সেঞ্চুরি পেয়ে গেলেন লঙ্কান ওপেনার।

শ্রীলঙ্কার টি-টোয়েন্টি দলে ছিলেন না মেন্ডিস। কুসল পেরেরার চোটে জায়গা পেয়ে যান দলে। প্রথম ম্যাচে ঝড়ো ব্যাটিংয়ে জেতেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার। দ্বিতীয় ম্যাচে ২৯ বলে পৌঁছান পঞ্চাশে।

বানের স্রোতের মতো আসছে রান। তাতে বাঁধ দেওয়ার সুযোগ হাতছাড়া করেছেন মাহমুদউল্লাহ। অধিনায়ক ছেড়েছেন দানুশকা গুনাথিলাকার ক্যাচ।

মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিনের স্লোয়ার বল ঠিক মতো খেলতে পারেননি গুনাথিলাকা। লাফিয়ে দুই হাতে চেষ্টা করেছিলেন মাহমুদউল্লাহ। কিন্তু ক্যাচ নিতে পারেননি। সে সময় ২৮ রানে ছিলেন গুনাথিলাকা। এর আগে ১৫ রানে তামিম ইকবালের হাতে জীবন পেয়েছিলেন তিনি।

সিরিজের শেষ ম্যাচের দলে একটি পরিবর্তন এনেছে শ্রীলঙ্কা। উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান নিরোশান ডিকভেলাকে বাদ দিয়ে দলে এনেছে আমিলা আপনসোকে। ছয়টি ওয়ানডে খেলা বাঁহাতি স্পিনার প্রথমবারের মতো খেলছেন টি-টোয়েন্টিতে।

শ্রীলঙ্কা দল: দিনেশ চান্দিমাল, উপুল থারাঙ্গা, দানুশকা গুনাথিলকা, কুসল মেন্ডিস, থিসারা পেরেরা, আমিলা আপনসো, দাসুন শানাকা, ইসুরু উদানা, শেহান মাদুশাঙ্কা, আকিলা দনঞ্জয়া, জিবন মেন্ডিস।

আগের ম্যাচে অভিষেক হয়েছিল চার জনের। দ্বিতীয় ম্যাচে দেশের হয়ে প্রথমবারের মতো খেলার সুযোগ পেলেন আরও দুই জন। অভিষেক হচ্ছে মেহেদি হাসান ও আবু জায়েদের। অফ স্পিনিং অলরাউন্ডার মেহেদি হাসান টুপি দিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ। আবু জায়েদকে টুপি দিয়েছে আরেক পেসার রুবেল হোসেন।

প্রথম টি-টোয়েন্টির বাংলাদেশ দলে পরিবর্তন চারটি। চোট কাটিয়ে দলে ফিরেছেন তামিম ইকবাল। ভিন্ন ভিন্ন চোটের জন্য তিনটি টি-টোয়েন্টিতে খেলতে পারেননি বাঁহাতি এই ওপেনার।

২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টি খেলতে নামছেন মোহাম্মদ মিঠুন। প্রথম টি-টোয়েন্টি দল থেকে বাদ পড়েছেন রুবেল হোসেন, সাব্বির রহমান, জাকির হাসান ও আফিফ হোসেন।

বাংলাদেশ দল: সৌম্য সরকার, তামিম ইকবাল, মোহাম্মদ মিঠুন, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ, মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিন, আরিফুল হক, মেহেদি হাসান, মুস্তাফিজুর রহমান, আবু জায়েদ, নাজমুল ইসলাম অপু।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন