শিরোনাম :

ইসরাইলে যাচ্ছে না মেসির আর্জেন্টিনা


বুধবার, ৬ জুন ২০১৮, ০৩:৫৬ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

ইসরাইলে যাচ্ছে না মেসির আর্জেন্টিনা

ক্রিয়া ডেস্ক: রাশিয়ার বিমান ধরার আগে আগামী ৯ জুন ইসরাইলের বিপক্ষে তাদেরই মাঠে একটি প্রীতি ম্যাচ খেলার কথা ছিল আর্জেন্টিনার। কিন্তু ফিলিস্তিনি তথা পুরো বিশ্বের বিক্ষোভের জেরে অবশেষে সেই ম্যাচটি বাতিল করলো দুইবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। যে কারণে ইসরাইয়েলে যাওয়া হচ্ছে না মেসিদের।

জেরুজালেম একমাত্র জায়গা যাকে ফিলিস্তিন এবং ইসরাইল দুই দেশই রাজধানী হিসেবে দাবি করে আসছে। আর সেখানেই বিশ্বকাপের আগে প্রীতি ম্যাচ খেলতে যাচ্ছিল মেসির আর্জেন্টিনা। যার বিরুদ্ধে শুরু থেকেই প্রতিবাদ করে আসছিল ফিলিস্তিনিরা।

ইসরাইল-ফিলিস্তিন সংঘাত বর্তমান সময়ে মারাত্বক আকার ধারণ করেছে। যে কারণে শতশত মানুষ নিহত হওয়ার পাশাপাশি আহত হচ্ছেন। গত মাসেও গাজা সীমান্তে ইসরায়েলি বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে অর্ধশতাধিক ফিলিস্তিনি নিহত এবং কয়েক হাজার ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন। এমন পরিস্থিতিতে ফিলিস্তিনিরা মেসিকে কয়েকদিন আগে আহ্বান জানিয়েছিলেন যেন ইসরাইলে খেলতে না যান তারা।

ফিলিস্তিনি ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি গত রোববার আর্জেন্টিনার উদ্দেশ্যে ঐ ম্যাচ নিয়ে বলেছিলেন, ‘মেসি বড় প্রতীক। তাই তাকে আমরা ব্যক্তিগতভাবে টার্গেট করেছি। আমরা সবাইকে বলেছি তার ছবি এবং জার্সি পুড়িয়ে প্রতিবাদ করতে। আমরা এখনো আশা করি মেসি এখানে খেলতে আসবে না।’

ইসরাইলের বিপক্ষে ম্যাচকে ঘিরে মঙ্গলবার বার্সেলোনাতে অনুশীলন করছিল আর্জেন্টিনা। সে সময় মাঠের বাইরে হাজার হাজার মানুষ হোর্হে সাম্পওলির শিষ্যদের জেরুজালেমে খেলতে না যাওয়ার প্রতিবাদ করে আসছিল। রক্তের রঙে পুরো অনুশীলন মাঠের আশপাশ রাঙ্গিয়ে দিয়েছিল আন্দোলনকারীরা। সেটা দেখেই সিদ্ধান্ত পাল্টে ফেলে আর্জেন্টাইন ফুটবল ফেডারেশন।

উল্লেখ্য যে, ইসরাইলের বিপক্ষে খেললে আর্থিকভাবে অনেক লাভবান হতে পারতো আর্জেন্টিনা। কিন্তু মানবিক দিক বিবেচনায় দেশটির ফেডারেশনের কাছে শেষ পর্যন্ত সে অর্থ হয়েছে তুচ্ছ।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন