শিরোনাম :

সিদ্ধান্ত সাকিবের ওপর


বুধবার, ১৫ আগস্ট ২০১৮, ১০:৫৩ পূর্বাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

সিদ্ধান্ত সাকিবের ওপর

ক্রীড়া: সাকিব আল হাসানের এশিয়া কাপ খেলা হবে কি না, সেটি নিশ্চিত হওয়া যায়নি এখনো। গত বৃহস্পতিবার ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর থেকে ফিরেই বাঁহাতি অলরাউন্ডার জানান, আঙুলের অস্ত্রোপচারটা তিনি সারতে চান এশিয়া কাপের আগে। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান একই দিনে সংবাদমাধ্যমকে জানান, তাদের চাওয়া, সাকিব অস্ত্রোপচার করান এশিয়া কাপের পর।

হজ করতে সাকিব এই মুহূর্তে আছেন সৌদি আরব। হজে যাওয়ার আগে সমাধান হয়নি তার অস্ত্রোপচারের বিষয়টি।

বুধবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে প্রয়াত ক্রীড়া সংগঠক আফজালুর রহমানের দোয়া অনুষ্ঠান শেষে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান বলেন, অস্ত্রোপচার নিয়ে সাকিব আর বিসিবির চাওয়া ভিন্ন নয়, ‘এটা নিয়ে দ্বিধার ব্যাপার নেই। আমরা একটা চাইছি, সাকিব চাইছে অন্যটা, বিষয়টি এমন নয়। ওর যে হাতে ব্যথা, আর সেখানে অস্ত্রোপচার লাগবে, এটাই ঠিকমতো জানা ছিল না। সে যে নিদাহাস ট্রফি কিংবা ওয়েস্ট ইন্ডিজে খেলে এল, আমরা তার চোট নিয়ে কিছুই জানতাম না। এই (টি-টোয়েন্টি) সিরিজের শেষ ম্যাচটির পর জানতে পারলাম। শুধু সাকিব নয়, যেকোনো খেলোয়াড়ের হাতে যদি ব্যথা থাকে, আমরা অবশ্যই যত দ্রুত সম্ভব সেটার সমাধান চাইব।’

তবে বিসিবি সভাপতি আগের কথাটাই পুনরাবৃত্তি করলেন, যদি এশিয়া কাপের পর অস্ত্রোচার করলেও হয়, তবে অবশ্যই সাকিবকে তারা এশিয়া কাপে চান, ‘কোচের সঙ্গে বৈঠকে জানা গেল, সে এখন অস্ত্রোপচার করাতে চাইছে। যদি হাতে ব্যথা থাকে তাহলে তো আর খেলতেই পারবে না। আর যদি পরে করার সুযোগ থাকে তাহলে আমরা অবশ্যই চাইব যে জিম্বাবুয়ে (অক্টোবর) কিংবা ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে (নভেম্বর) করলে ভালো হয়। এখন পুরোটাই নির্ভর করছে ফিজিও-চিকিৎসক ও সাকিবের ওপর। সাকিব যাওয়ার আগে (হজে) ফোন করেছিল, জিজ্ঞেস করেছিল কী করবে সে। বলেছি, তার যদি হাতে ব্যথা থাকে আর সে যদি মনে কর এভাবে খেললে সমস্যা হবে তাহলে অস্ত্রোপচার করে ফেলতে পারে। এটাও বলেছি, ‘তুমি যদি মনে কর এশিয়া কাপে খেলা সম্ভব তাহলে টুর্নামেন্টের পরে করো, সেটা দলের জন্য ভালো হবে। এখন সিদ্ধান্ত তোমার ওপর।’

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন