শিরোনাম :

দুবাই গেল বাংলাদেশ দল


সোমবার, ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৮:৫৯ পূর্বাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

দুবাই গেল বাংলাদেশ দল

ক্রীড়া: হজ পালন শেষে ঢাকায় আসেননি সাকিব আল হাসান। বাংলাদেশ দলের ম্যানেজার পদে শেষ মূহুর্তে খালেদ মেহমুদ সুজনের নাম অর্ন্তভুক্ত হওয়ায় হাতে ভিসা’র কাগজ পাননি বুঝে।

প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু’রও ভিসা পেতে হচ্ছে বিলম্ব। সে কারনেই এই তিন সদস্যকে ছাড়া রবিবার সন্ধার ফ্লাইটে বাংলাদেশ দল উড়াল দিয়েছে দুবাইয়ের উদ্দেশ্যে।

দুবাই যাত্রার আগে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সবার প্রিয় চাচা, মুশফিকুর রহিমের বাবা তারা মিয়া হাজির হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে। ছেলে মুশফিককে জড়িয়ে ধরেছেন,কপালে চুমু খেয়েছেন। সবার জন্য করেছেন দোয়া। তারা মিয়ার দেয়া নিয়ে দুবাই যাত্রা করেছে বাংলাদেশ দল।

এশিয়া কাপ ক্রিকেটের সর্বশেষ ৩ আসরের ২টিতে বাংলাদেশ রানার্স আপ। সেই গর্বিত অতীত থেকে টনিক নিয়ে শিরোপার মিশনে স্বপ্ন যাত্রা করেছে বাংলাদেশ দল। বাংলাদেশ দলের তরুন ক্রিকেটাররা বিমানবন্দরে সেলফি তুলে নিজেদের চাঙ্গা ভাব করেছে প্রকাশ।

এশিয়া কাপ স্কোয়াডে এবারই প্রথম মিরাজ,আবু হায়দার রনি, শান্ত,মিঠুন,রাহি। তারা সবাই শিহরিত। যাত্রার প্রাক্কালে স্বপ্ন দেখিয়ে গেছেন তারা। অতীত থেকে প্রেরনা নিয়ে দারুন কিছু করতে চান তিন ফরমেটে অপরিহার্য ক্রিকেটার মেহেদী হাসান মিরাজ-‘ আমরা সর্বশেষ তিন এশিয়া কাপের দুইটিতেই আমরা ফাইনালে খেলেছি। প্রত্যাশা থাকবে ভালো করার, আমাদের টিম কম্বিনেশন সব কিছুই ভালো আছে। আমরা অনেক কঠোর পরিশ্রম করেছি, ইনশাআল্লাহ ভালো হবে, দেশের মানুষের কাছে দোয়া চাচ্ছি। এটা আমাদের প্রথম এশিয়া কাপ। আমি কখনো এশিয়া কাপ খেলি নি। লক্ষ্য থাকবে দলের জন্য যা দরকার ততটুকু দেয়ার। আমি যেখানে ব্যাট করি সেখানে ২০-২৫ রানও অনেক ভাইটাল। আমি সে চেষ্টাই করব। ’

আবু হায়দার রনি বর্তমানে বাংলাদেশ দলের ধারাবাহিকতা বজায় রাখাকে দিয়েছেন গুরুত্ব-‘ টার্গেট থাকবে যে আমরা যেন ভালো খেলতে পারি। আমরা দল হিসেবে খুব ভালো খেলছি। আমাদের লক্ষ্য থাকবে যেন আমরা এর ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে পারি। গ্রুপে দুটি ম্যাচ আছে। এই দুটি ম্যাচ যদি ভালোভাবে খেলতে পারি তাহলে এরপরের লক্ষ্য ঠিক করবো।’

ওয়ানডে অভিষেকের সামনে দাঁড়িয়ে শিহরিত এই বাঁ হাতি পেস বোলার-‘ যদি সুযোগ পাই তাহলে আমার ওয়ানডেতে অভিষেক হবে। আর গত কয়েক ম্যাচে আমার বেশ ভালো বোলিং হয়েছে। এটাই সেখানে ধরে রাখার চেষ্টা করবো। যদি ম্যাচ খেলি তাহলে আমি যেগুলো ভালো পারি সেগুলো করার চেষ্টা করবো এবং দলকে কিছু দেয়ার চেষ্টা করবো।'

মিঠুনের টার্গেট নিজের অবস্থান পাকাপোক্ত করা-‘অবশ্যই ভালো করার চেষ্টা থাকবে। নিজের দিক থেকে দলের জন্য সর্বোচ্চ অবদান রাখতে চাইব।’

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন