শিরোনাম :

এশিয়ায় বাংলাদেশই ভারতের প্রধান চ্যালেঞ্জার: এনডিটিভি


শুক্রবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১২:০৭ পূর্বাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

এশিয়ায় বাংলাদেশই ভারতের প্রধান চ্যালেঞ্জার: এনডিটিভি

ক্রীড়া: এশিয়া মহাদেশে বাংলাদেশই ভারতের প্রধান চ্যালেঞ্জার বলে দাবি করেছে ভারতের সবচেয়ে প্রভাবশালী গণমাধ্যম এনডিটিভি।

বৃহস্পতিবার এই নিয়ে গণমাধ্যমটি তাদের অনলাইনে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। তাতে বলা হয়েছে, দু বছর আগে এশিয়া কাপের ফাইনাল ভারতের কাছে হারের পর বাংলাদেশ ক্রিকেটাররা শপথ করেছিলেন ফিরে আসার। সেই শপথটা রাখতেই আজ, শুক্রবার দুবাইয়ে এশিয়া কাপের ফাইনালে ভারতের বিরুদ্ধে নামছে বাংলাদেশ। অন্যদিকে, টুর্নামেন্টে অপ্রতিরোধ্য ক্রিকেট খেলা ভারত চাইছে সাতবার এশিয়া কাপ জিতে বিশ্বকাপের আগে নিজেদের সঠিক পথে রাখা। শুক্রবার ফাইনালে গতবারের চ্যাম্পিয়ন ভারত ফেভারিট হিসেবে নামছে ঠিকই, কিন্তু বাংলাদেশ অঘটন ঘটানোর ক্ষমতা রাখে। পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটের এখন যা হাল তাতে এশিয়া মহাদেশে বাংলাদেশই ভারতের প্রধান চ্যালেঞ্জার। গত চারটি এশিয়া কাপে তিনটিতে ফাইনালে খেলে বাংলাদেশ ধারাবাহিকতার পরিচয় দিয়েছে। ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের মতই সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন ভারত-বাংলাদেশ ম্যাচ নিয়েও উত্তেজনার পারদ চড়ে। আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে প্রথম পছন্দের দলের পাঁচজনকেে বিশ্রাম দেয় ভারত। ধোনির নেতৃত্বে খেলে সেই ম্যাচ টাই হয়। তার আগে টুর্নামেন্টের চারটে ম্যাচেই জেতে ভারত।

অন্যদিকে, বাংলাদেশের ফাইনালে ওঠাটা একেবারে নাটকীয়। সুপার ফোরের প্রথম ম্যাচে ভারতের কাছে বড় হার, টুর্নামেন্ট চলাকালীন তামিম, সাকিবদের ছিটকে যাওয়া। এত সবের মাঝে সুপার ফোরে পরপর দু'টা ম্যাচে জিতে নাটকীয়ভাবে ফাইনালে ওঠে বাংলাদেশ। আফগানিস্তানের বিরুদ্ধেই হেরে যেতে পারত বাংলাদেশ। কিন্তু মুশফিকুর- মুস্তাফিজুররা এখন অনেক পরিণত।


১৮ বছর ধরে টেস্ট খেলে বড় ম্যাচে কঠিন সময়ে ম্যাচ বের করার কায়দাটা বাংলাদেশ শিখেছে। বুধবার পাকিস্তানকে যেভাবে হারালেন শেখ হাসিনার দেশের ক্রিকেটাররা, তার কোনও প্রশংসাই যথেষ্ট নয়। ১২ রান তিন উইকেট হারিয়েও বাংলাদেশ ২৩৯ রান করে। বোলিংয়ে আগুন ঝরান মুস্তাফিজুর। তবে নড়বড়ে পাকিস্তানকে হারানো এক কথা, আর ভারতকে হারানো আরেক। শিখর ধাওয়ান, রোহিত শর্মা দারুণ ফর্মে।

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে দু'জনেই সেঞ্চুরি করেছিলেন। গত বছর টি টোয়েন্টি ফর্ম্যাটে হওয়া এশিয়া কাপের ফাইনালে মীরপুরে শিখর ধাওয়ান ৬০ রান করে ম্যাচের সেরা হয়েছিলেন। এবারও গব্বরকে নিয়ে চিন্তায় থাকবেন মুস্তাফিজুররা। একে ধাওয়ানে রক্ষে নেই, তার ওপর আবার রোহিত শর্মা। রোহিত আবার গত শুক্রবার সুপার ফোরের ম্যাচে ৮৩ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেছিলেন। তবে বাংলাদেশের আসল চিন্তা ছিল ভারতের বোলিং। মুশফিকুর ফাইনালে চোট নিয়েই নামছেন। বাংলাদেশ প্রথমবার এশিয়া কাপ জিততে মরিয়া।

অন্যদিকে, কাল ফাইনালে ভারত পূর্ণশক্তিতেই নামছে। রোহিত-ধাওয়ান-বুমরা-ভুবি-চাহাল ফিরছেন। আফগান ম্য়াচে দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬০ রানের ইনিংস খেললেও লোকেশ রাহুলকে রিজার্ভ বেঞ্চেই বসতে হচ্ছে।

এশিয়া কাপের ফাইনাল ভারত বনাম বাংলাদেশ শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৫ টায় মাঠে নামছে।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন