শিরোনাম :

'টপ অর্ডার নিয়ে সত্যিই কনফিউজড'


শুক্রবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০:১৪ পূর্বাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

'টপ অর্ডার নিয়ে সত্যিই কনফিউজড'

ক্রীড়া: এশিয়া কাপের চলমান আসরের শুরু থেকেই টপ অর্ডারটা ছন্ন-ছাড়া দেখাচ্ছে। গ্রুপ রাউন্ডের প্রথম ম্যাচে স্কোরশিটে ১ রান উঠতে হারিয়েছে বাংলাদেশ ২ উইকেট। আফগানিস্তানের বিপক্ষে পরবর্তী ম্যাচে ১৭ রান উঠতে নেই ২ উইকেট।

সুপার ফোর এর প্রথম ম্যাচে ভারতের বিপক্ষেও একই দূর্বিষহ চেহারা। স্কোরশিটে ১৬ রান উঠতে হারিয়েছে বাংলাদেশ ২ ব্যাটসম্যান। আফগানিস্তানের বিপক্ষে ডু অর ডাই ম্যাচে ১৮ রানে হারিয়েছে ২ ব্যাটসম্যান, অলিখিত সেমিফাইনালে পাকিস্তানের বিপক্ষেও একই চেহারা। ১২ রান উঠতে নেই বাংলাদেশের ৩ উইকেট !

তামীমের ইনজুরি বড় ধরনের ধাক্কা দিয়েছে বাংলাদেশ দলকে। তার শুন্যতা যেনো পূরণ করতে পারছে না কেউ। বড় আশা করে শান্তকে মেকশিপ্ট ওপেনার বানাতে চেয়ে হিতে বিপরীত হয়েছে। তাকে বাদ দিয়ে ১১ মাস পর সৌম্যকে ওয়ানডেতে ফিরিয়ে এনেও তার সুফল পায়নি বাংলাদেশ দল। একটি ইনিংস বাদ দিলে লিটন চেনাতে পারেননি নিজেকে। সাকিবের ব্যাক আপ হিসেবে মুমিনুল যে গড়ে ওঠেননি, তা জানিয়ে দিয়েছেন।

এশিয়া কাপের ৫ ম্যাচে বাংলাদেশের ওপেনিং পার্টনারশিপের গড় মাত্র ৯.১১ ! জঘন্যই বলতে পারেন। প্রতিটি ম্যাচে বাংলাদেশের টপ অর্ডারের ব্যর্থতা পুষিয়ে দিতে লড়তে হচ্ছে মিডল এবং লোয়ার অর্ডার ব্যাটসম্যানদের। মুশফিক-মিঠুনের ২টি পার্টনারশিপ ( ১৩১ও ১৪৪), ইমরুল-রিয়াদের একটি পার্টনারশিপ ( ১২৮) বাংলাদেশকে জিতিয়েছে তিনটি ম্যাচ।

বাংলাদেশের টপ অর্ডারের চেহারা যেখানে দূর্বিষহ, সেখানে কোহলীহীন ভারত টপ অর্ডারও অনেক শক্তিশালী। এশিয়া কাপে বাংলাদেশের ওপেনিং পার্টনারশিপের গড় যেখানে ৯.১১, সেখানে তার প্রায় দশগুন গড় ভারত ওপেনিং পার্টনারশিপের ( ৮৯.১২)। ভারতের নিয়মিত দুই ওপেনার ধাওয়ান,রোহিত শর্মা এখন ফর্মের তুঙ্গে। ৪ ইনিংসে ২ সেঞ্চুরিতে ধাওয়ান ইতোমধ্যে করেছেন ৩২৭ রান, রোহিত শর্মার রান সেখানে ৪ ইনিংসে ২৬৯। পেছনে আছেন রাইডু ( ১৭৩ রান)। দিনেশ কার্তিক ও আছেন দারুন ফর্মে। ভারতের বিপক্ষে ফাইনালকে সামনে রেখে তাই মাশরাফির যতোসব দূর্ভাবনা টপ অর্ডারকে ঘিরে।

বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে সেই দূর্ভাবনার কথা জানিয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক-‘ আমাদের টপ অর্ডাররা যেভাবে খেলছে, তাতে রান সেট আপ করা কঠিন হয়ে যাচ্ছে। পাঁচ-ছয় ওভারে ২ উইকেট পড়ে গেলে কাজটা কঠিন হয়ে পড়ে। যদি ওরা ভাল ব্যাট করতে পারে, তাহলে রান সেট আপ করা যায়। গত ম্যাচে মিঠুন-মুশফিক যখন ব্যাটিং করেছে, তখন তারা বার্তা পাঠিয়েছে, ২৬০ রানের দিকে যাবে কি না।’

ভারতের বিপক্ষে লড়তে হলে টার্গেট সেট করা জরুরী। তার জন্য টপ অর্ডারের দিকে তাকিয়ে আছেন মাশরাফি-‘ ভারতের যে ব্যাটিং লাইন আপ, তাতে ২৬০-২৭০ করলে একটা ফাইট করার সুযোগ থাকবে। আমি টপ অর্ডার নিয়ে সত্যিই কনফিউজড। বোলিং,কিংবা ব্যাটিং-যা ই পাই না কেন, স্টার্টটা ভাল করা জরুরী।’

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন