শিরোনাম :

মাশরাফি ব্রিগেড বন্দনায় বিশ্বের রথী-মহারথীরা


রবিবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৯:৫০ পূর্বাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

মাশরাফি ব্রিগেড বন্দনায় বিশ্বের রথী-মহারথীরা

ক্রীড়া: এশিয়া কাপের সফল মিশন শেষে দেশে ফিরেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। শনিবার রাত সাড়ে ১১টায় হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে অবতরণ করে মাশরাফিদের বহনকারী বিমানটি। সেখানে তাদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

এর ২ ঘণ্টা পর নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে একটি স্ট্যাটাস দেন টাইগার দলনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। তাতে দেশের আমূল পরিবর্তন করতে আপামর জনসাধারণকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি। তার স্ট্যাটাসটি তুলে ধরা হলো-

নাহ! এবারও হলো না! আমরা যখন মাঠে খেলি তখন শতভাগ দিয়ে চেষ্টা করি দেশকে যেন জেতাতে পারি। মুশফিক পাঁজরের ব্যথা নিয়ে ব্যাটিং করে টানা তিন ঘণ্টা, সাকিব হাতে সেলাই নিয়ে খেলে, তামিম ভাঙা হাত নিয়ে নেমে পড়ে ব্যাটিং করতে। আমরা ক্রিকেটের ছোট পরিসরে একটা জয় দিয়ে যদি ১৬ কোটি মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে পারি, তাহলে একবার চিন্তা করে দেখেন তো; যদি সবাই মিলে নিজের স্থান থেকে দেশের জন্য কিছু করি তাহলে দেশটার কি আমুল পরিবর্তন করতে পারি?

শুধু দরকার একটু দায়িত্ববোধ ও চেষ্টার। আসুন না, আমরা সবাই মিলে একবার চেষ্টা করেই দেখি এই লাল সবুজের পতাকাটার জন্য। আমরা প্রতিদিনই জেতার চেষ্টা করি, আজকে না হয় হারলাম; নিশ্চয়ই কালকে আবার জিতব। দেখা হবে আবার।

এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ের শুরুতেই তামিম ইকবালকে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। মাঝপথে সাকিব আল হাসানকে। অনেকেই ছিলেন ইনজুরি আক্রান্ত। সেই দল নিয়েই এশিয়া কাপের ফাইনাল খেলেছে টাইগাররা। সেই পথে বিদায় করেছে ক্রিকেট পরাশক্তি শ্রীলংকা, পাকিস্তান এবং নব্য শক্তি আফগানিস্তানকে। শেষ পর্যন্ত ফাইনালি লড়াইয়ে রোহিত বাহিনীর কাছে ৩ উইকেটে হেরেছে তারা।

তবে ২২২ রানের স্বল্প পুঁজি নিয়ে ভারতের মতো শক্তিশালী দলের বিপক্ষে যেভাবে লড়েছে তা নজর কেড়েছে সবার। প্রশংসার বৃষ্টিতে ভিজছেন মাশরাফি ব্রিগেড। তাদের বন্দনায় বিশ্ব ক্রিকেটাঙ্গনের সাবেক ও বর্তমান রথী-মহারথীরা।

বাংলাদেশের এই লড়াইয়ের জন্য তাদের প্রশংসা করেছেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহালিও। টুইটারে তিনি নিজের দলকে অভিনন্দন জানানোর পরে লেখেন, ‘‘দুর্দান্ত লড়াইয়ের জন্য বাংলাদেশকে অভিনন্দন।’’ এমনকী টুইটারে বীরেন্দ্র সহবাগ, ভিভিএস লক্ষ্মণরাও বাংলাদেশের প্রশংসা করেন। এক সময় বাংলাদেশকে তাচ্ছিল্য করা সহবাগ লেখেন, ‘‘শাকিব-তামিমদের ছাড়াও যে লড়াইটা করল বাংলাদেশ, সে জন্য ওদের টুপি খুলে অভিনন্দন জানাচ্ছি। আর লক্ষ্মণ লেখেন, ‘‘বাংলাদেশ দৃঢ় মনোভাব দেখিয়ে দুর্দান্ত লড়াই করেছে। কখনও হাল না ছেড়ে নিজেদের উজাড় করে দিয়েছে। এই মানসিকতার জন্য অভিনন্দন।’’

লড়াকু এই মনোভাবই অদূর ভবিষ্যতে মাশরফিদের সাফল্য এনে দিতে সাহায্য করবে বলে আশা সে দেশের ক্রিকেটমহলের।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন