শিরোনাম :

রোনালদোকে সরিয়ে দিল পর্তুগাল


শুক্রবার, ৫ অক্টোবর ২০১৮, ১২:৫০ পূর্বাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

রোনালদোকে সরিয়ে দিল পর্তুগাল

ক্রীড়া: ধর্ষণ-কাণ্ডের জের। বড়সড় শাস্তির মুখে পড়লেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। পর্তুগালের জাতীয় দল থেকে সাময়িকভাবে ছেঁটে ফেলা হল তাঁকে।

২০০৯ সালে ক্যাথরিন মায়োরগা নামের এক নারী ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেছেন। অক্টোবরে পোল্যান্ড ও স্কটল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রীতি ম্যাচ খেলবে পর্তুগাল। কিন্তু ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে স্কোয়াডের বাইরে রাখল পর্তুগাল। উয়েফা নেশনস কাপের জন্য নির্বাচিত পর্তুগাল স্কোয়াডে তাঁকে রাখা হয়নি।

পর্তুগালের কোচ স্যান্টোস এক সাংবাদিক সম্মেলেন এসে ইঙ্গিত দিয়ে গেলেন, আপাতত ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে জাতীয় দলের জার্সি গায়ে দেখা যাবে না। ঠিক কবে নাগাদ দেখা যাবে তা নিয়েও স্পষ্ট কিছু বলেননি তিনি।

ইউরোপের সংবাদমাধ্যম মনে করছে, ধর্ষণ-কাণ্ডের জেরেই রোনালদোর বিরুদ্ধে এমন কড়া পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হয়েছে পর্তুগিজ ফুটবল সংস্থা। না হলে এই মুহূর্তে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে দলের বাইরে রাখার আর কোনও কারণ খুঁজে পাচ্ছে না তারা।

স্যান্টোস জানিয়েছেন, তিন তরফে আলোচনা হয়েছে। অর্থাত্, পর্তুগিজ ফুটবল সংস্থার প্রধান ও স্যান্টোসের সঙ্গে আলোচনায় বসেছিলেন সিআরসেভেন। সেখানেই আলোচনার পর এমন সিদ্ধান্ত পাকা করা হয়। তবে পুরো আলোচনাই ব্যক্তিগত স্তরে হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্যান্টোস। ফলে আলোচনার কোনও প্রসঙ্গ নিয়েই তিনি কথা বলেননি।

পর্তুগালের কোচ স্যান্টোস জানিয়েছেন, পরবর্তী দুটি স্কোয়াড নির্বাচন প্রক্রিয়ায় তাঁরা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে ভাবনায় রাখছেন না। অর্থাত্ আগামী অন্তত দুই মাস রোনাল্ডোকে পর্তুগালের জার্সি গায়ে দেখা যাবে না।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন