শিরোনাম :

আরচারিতে পুরুষ সোনা জেতেন সোহেল


মঙ্গলবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ০৩:১৬ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

আরচারিতে পুরুষ সোনা জেতেন সোহেল

ডেস্ক: ছোটবেলা থেকেই ফুটবলের প্রতি ভালোবাসা ছিল। গ্রামে সকাল-বিকেল বন্ধু-বান্ধবের সঙ্গে বল নিয়ে মেতে থাকতেন। মনে মনে একটা স্বপ্নও ঠিক করেছিলেন, একদিন ফুটবলে দেশকে প্রতিনিধিত্ব করবেন। চাঁপাইনবাবগঞ্জের স্থানীয় লিগ ক্লাবের হয়ে মাঠও মাতিয়েছিলেন সোহেল রানা। একদিন অনুশীলনের সময় দেখেন, তাদেরই শহরে আরচারির উদ্বোধন হচ্ছে। কাছে গিয়ে তীর-ধনুকের খেলাটি দেখে প্রেমে পড়ে যান। রাজশাহীর একটি ক্লাবে ভর্তিও হয়ে যান।

এরপর খেলোয়াড় কোটায় চাকরি হয় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে। বদলে যায় সোহেলের জীবন। আস্তে আস্তে তীর-ধনুকের খেলায় নিজেকে নিয়ে যান অনেক ওপরে। ফুটবল ছেড়ে আরচারিতে এসে এবার তো পেলেন আন্তর্জাতিক অঙ্গনে প্রথম সাফল্য। সাউথ এশিয়ান (এসএ) গেমসে তিনিই প্রথম আরচার, যিনি কি-না স্বর্ণজয়ের হ্যাটট্রিক করেছেন। সোহেলের পর তিনটি স্বর্ণ জিতেছেন রোমান সানা ও ইতি খাতুন।

পোখারায় সোমবার কম্পাউন্ড পুরুষ ব্যক্তিগত ইভেন্টে মাত্র এক পয়েন্টের ব্যবধানে সোনা জেতেন সোহেল। ভুটানের তাদিন দর্জিকে ১৩৭-১৩৬ পয়েন্টে হারিয়ে সোনালি হাসি হাসেন সোহেল।আগের দিন দুটি করে স্বর্ণপদক জিতে হ্যাটট্রিক স্বর্ণের আলোচনায় ছিলেন অলিম্পিকে নিজ যোগ্যতায় কোয়ালিফাই করা আরচার রোমান সানা, ভবিষ্যতে ওয়ার্ল্ড কাপের স্বপ্ন দেখা ইতি খাতুন ও সাইলেন্ট কিলার সোহেল রানা। সবাইকে টেক্কা দিয়ে সবার আগে হ্যাটট্রিক পদক আদায় করে নেন রাজশাহীর ছেলে সোহেল। আরচারিতে হ্যাটট্রিক পদকের কথা এলেই সবার আগে নিতে হবে সোহেল রানার নাম। তবে তার আগে ১৯৮৫ সাফ গেমসে সাঁতার ডিসিপ্লিনে ঢাকায় পাঁচটি স্বর্ণ জিতেছিলেন মোশাররফ হোসেন।

আরচারির প্রথম হ্যাটট্রিকম্যান সোহেল বলেন, 'মূলত এদিকে আমার কোনো খেয়ালই ছিল না। ভেবেছিলাম, প্রথম ম্যাচ হবে রিকার্ভ বিভাগে। হঠাৎ নাম ঘোষণা করায় একটু অপ্রস্তুত হয়ে পড়ি। জিয়াউর স্যার সাহস দেন। বলেন, তুই তো সবার ওপরে। চিন্তা কী। তারপরও প্রথম দুই সেটে একটু পিছিয়ে গিয়েছি সত্যি, কিন্তু সাহস হারাইনি। যখন আমাকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়, তখন একটু অপ্রস্তুত হয়ে যাই। আগে কখনও এমন পরিস্থিতিতে পড়িনি বলে কারও কোনো কথার উত্তর গুছিয়ে দিতে পারছি না।'

অথচ ফুটবল ছেড়ে তীর-ধনুক হাতে নেওয়ার পর অনেক কটুকথা শুনতে হয়েছিল সোহেলকে। কিন্তু কারও কথায় কান দেননি।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন