শিরোনাম :

ঝিনাইদহে গৃহবধূকে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা


বৃহস্পতিবার, ৩ আগস্ট ২০১৭, ০৪:১৫ অপরাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

ঝিনাইদহে গৃহবধূকে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা


ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলা নাটিমা গ্রামের এক যুবতী গৃহবধূকে বিদেশে চাকরী দেওয়ার নাম করে ঢাকায় আটকে রেখে ধর্ষণ ও ভিডিও ধারণ করে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় ঝিনাইদহ পন্যগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ ট্রাইব্যুনাল আদালতে একটি মামলা হয়েছে, যার মামলা নং ১৩১৪/১৭।

পুলিশ ঘটনার সত্যতা জানতে ভিকটিম গৃহবধুকে ডেকে ঝিনাইদহ পুলিশ সুপারের অফিসে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। ঝিনাইদহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী শেখ ঘটনাটি সত্য কিনা তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে জানান।

পন্যগ্রাফি নিয়ন্ত্রন ট্রাইব্যুনাল আদালতে দায়ের করা অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, বিদেশে চাকরী দেওয়ার নাম করে নাটিমা গ্রামের আব্দুল কুদ্দুস মোল্লার ছেলে খোকন মোল্লা (৩৩) ওই গৃহবধুকে ঢাকার মিরপুর-১ এর একটি বাসায় নিয়ে যায়। যাওয়ার সময় তরুনীকে বলা হয় পাসপোর্ট ও ডাক্তারী পরীক্ষা বাবদ ৩৫ হাজার টাকা সঙ্গে নিতে হবে।

চলতি বছরের ২৪ মে গৃহবধূকে নিয়ে খোকন মোল্লা ঢাকায় যায়। ঢাকায় যওয়ার পর থেকেই মিরপুর-১ এলাকার ওই বাসায় আটকে রেখে ৯ দিন ধরে তাকে জোর পুর্বক ধর্ষণ করে খোকন মোল্লা। এ সময় কৌশলে মোবাইলে ধর্ষণের ভিডিও চিত্র ধারণ করে খোকন।

গত ৩ জুন ওই গৃহবধূকে বাড়ি পাঠিয়ে দেয়। এরপর লম্পট খোকন মোল্লা ভিডিও চিত্র সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও ইউটিউবে ছড়িয়ে দেয়। এ নিয়ে মহেশপুরে তোলপাড় শুরু হয়। নিরুপায় হয়ে ওই গৃহবধূ গত ২৫ জুলাই বাদী হয়ে আদালতে মামলা করেন।

এ বিষয়ে ঝিনাইদহ জেলা পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী শেখ জানান, মিডিয়া কর্মীদের মাধ্যেমে খবর পেয়ে আমরা ভিকটিমকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছি। তার দেওয়া তথ্য যাচাই বাছাই করা হচ্ছে। তিনি বলেন এ বিষয়ে পন্যগ্রাফি নিয়ন্ত্রন ট্রাইব্যুনালে মামলা হয়েছে।

এটি

 

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন