শিরোনাম :

জুসে চেতনানাশক মিশিয়ে কলেজছাত্রীকে গণধর্ষণ


রবিবার, ৬ আগস্ট ২০১৭, ১১:৫৯ পূর্বাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

জুসে চেতনানাশক মিশিয়ে কলেজছাত্রীকে গণধর্ষণ

ডেস্ক প্রতিবেদন: বরিশালের গৌরনদী সরকারি কলেজের এক ছাত্রীকে তুলে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।গুরুতর অবস্থায় ওই শিক্ষার্থীকে মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য অভিযুক্ত যুবক রিফাদের বাবা আব্দুর রাজ্জাক আকন, মা রেহানা বেগম ও বন্ধু বারেক সরদারকে আটক করেছে পুলিশ।

তাদের সবার বাড়ি বরিশালের গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের পশ্চিম সমরসিংহ গ্রামে।স্থানীয়দের বরাত দিয়ে কালকিনি থানার ওসি কৃপাসিন্দু বালা জানান, শনিবার দুপুরে কলেজ শেষে রিকশায় বাড়ি ফিরছিল মেয়েটি।পথে তার বন্ধু রিফাদ আকন মেয়েটির রিকশার গতিরোধ করে।পরে সহযোগী বারেক ও আসাদকে নিয়ে তাকে জোর করে বার্থী ইউনিয়নের ইল্লা বাসস্ট্যান্ডের পাশের চালের মিলের (চাতাল) কাছে একটি কলা বাগানে নিয়ে যায়।

সেখানে জুসের সঙ্গে চেতনানাশক মিশিয়ে মেয়েটিকে খাওয়ানোর পর সে অজ্ঞান হয়ে পড়ে।এরপর তিনজন মিবরিশালের গৌরনদী সরকারি কলেজের এক ছাত্রীকে তুলে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গুরুতর অবস্থায় ওই শিক্ষার্থীকে মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য অভিযুক্ত যুবক রিফাদের বাবা আব্দুর রাজ্জাক আকন, মা রেহানা বেগম ও বন্ধু বারেক সরদারকে আটক করেছে পুলিশ।তাদের সবার বাড়ি বরিশালের গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের পশ্চিম সমরসিংহ গ্রামে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে কালকিনি থানার ওসি কৃপাসিন্দু বালা জানান, শনিবার দুপুরে কলেজ শেষে রিকশায় বাড়ি ফিরছিল মেয়েটি।পথে তার বন্ধু রিফাদ আকন মেয়েটির রিকশার গতিরোধ করে। পরে সহযোগী বারেক ও আসাদকে নিয়ে তাকে জোর করে বার্থী ইউনিয়নের ইল্লা বাসস্ট্যান্ডের পাশের চালের মিলের (চাতাল) কাছে একটি কলা বাগানে নিয়ে যায়।

সেখানে জুসের সঙ্গে চেতনানাশক মিশিয়ে মেয়েটিকে খাওয়ানোর পর সে অজ্ঞান হয়ে পড়ে।এরপর তিনজন মিবরিশালের গৌরনদী সরকারি কলেজের এক ছাত্রীকে তুলে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গুরুতর অবস্থায় ওই শিক্ষার্থীকে মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য অভিযুক্ত যুবক রিফাদের বাবা আব্দুর রাজ্জাক আকন, মা রেহানা বেগম ও বন্ধু বারেক সরদারকে আটক করেছে পুলিশ।তাদের সবার বাড়ি বরিশালের গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের পশ্চিম সমরসিংহ গ্রামে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে কালকিনি থানার ওসি কৃপাসিন্দু বালা জানান, শনিবার দুপুরে কলেজ শেষে রিকশায় বাড়ি ফিরছিল মেয়েটি।পথে তার বন্ধু রিফাদ আকন মেয়েটির রিকশার গতিরোধ করে। পরে সহযোগী বারেক ও আসাদকে নিয়ে তাকে জোর করে বার্থী ইউনিয়নের ইল্লা বাসস্ট্যান্ডের পাশের চালের মিলের (চাতাল) কাছে একটি কলা বাগানে নিয়ে যায়।

সেখানে জুসের সঙ্গে চেতনানাশক মিশিয়ে মেয়েটিকে খাওয়ানোর পর সে অজ্ঞান হয়ে পড়ে। এরপর তিনজন মিলে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে।এতে মেয়েটি অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রিফাদ ও তার বন্ধুরা ভর্তি করে পালিয়ে যান।পরিবারের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে পরে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের তিনজনকে আটক করেছে বলেও জানান ওসি।

কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডা. ইকরাম হোসেন জানান, অচেতন অবস্থায় মেয়েটির চিকিৎসা চলছে।জ্ঞান ফিরলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

 

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন