শিরোনাম :

রমজানে গর্ভবতী মায়েদের জন্য করণীয়


বৃহস্পতিবার, ৩১ মে ২০১৮, ১১:৪৪ পূর্বাহ্ণ, বাংলাপ্রেস ডটকম ডটবিডি

রমজানে গর্ভবতী মায়েদের জন্য করণীয়

ডেস্ক প্রতিবেদন: রমজানে গর্ভবতী মায়ের জন্য পরামর্শ।পবিত্র মাহে রমজানে এখন অনেক সময় ধরে রোযা পালন করতে হবে, আবার গরমও বেশ পরেছে। প্রত্যেক গর্ভবতী মায়ের সাথে জড়িয়ে আছে অন্য প্রাণের স্পন্দন। তাই রমজানে দরকার বাড়তি সচেতনতা।

এখন প্রশ্নঃ গর্ভবতী মা রা কি রোযা রাখতে পারবেন?

হ্যা, অবশ্যই একজন গর্ভবতী মা রোযা রাখতে পারবেন।

এসময় বেশিরভাগ সময় তারা ভীত থাকেন তার সন্তানের কোন ক্ষতি হবে কিনা। না, রোযা রাখার জন্য তার অনাগত সন্তানের ক্ষতির সম্ভাবনা নেই। তবে রোযা পালনে গর্ভবতী মায়ের আর সন্তানের জীবনের ঝুঁকি থাকলে অথবা অপারগ হলে রোযা নাও রাখতে পারেন। গর্ভাবস্থায় শারীরিক এবং মানুষিক ব্যাপক পরিবর্তন ঘটে। রোযা রেখে ইবাদতের মাধ্যমে আপনি এগিয়ে যাবেন অনেকগুন।

রোযা থাকা অবস্থায় গর্ভবতী মায়ের কি করণীয়?

এখন গরম। শরীর থেকে প্রচুর পানি বের হয়ে যাবে আর অনেক সময় ধরে না খেয়ে থাকতে হবে। ইফতার থেকে সেহরি পযন্ত প্রচুর পরিমানে পানি পান করুন। খাবার স্যালাইন খেতে পারলে ভাল। ইফতারে প্যাকেট এর কোন জুস না খেয়ে বরং লেবুর শরবত অথবা ঘরে বানানো পানীয় পান করাই ভালো। সারাদিন রোযা রাখার পর আমরা এক সাথে প্রচুর খাবার খেয়ে ফেলি, যা গর্ভবতী মা করতে পারবেন না। সহজে হজম হবে এমন খাবার খাওয়াই উওম। আর রমজানে ভাজা পোড়া খাবার থেকে দূরে থাকবেন, কারণ এতে প্রচুর এসিডিটির সমস্যা হতে পারে। সেহরিতে কলা আর প্রচুর শাকসবজি খেয়ে নিলে মায়েরা কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে রেহাই পাবেন। গর্ভাবস্থায় ৮ঘন্টা ঘুম আর ২ঘন্টা বিশ্রাম নেওয়া উচিৎ। গর্ভাবস্থায় দাড়িয়ে নামাজ পরতে না পারলে বসেই নামাজ পরুন। এই অবস্থায় সন্তানের নড়াচড়া অনুভব করুন। নিয়মিত প্রসূতি কালীন সেবা গ্রহণ করুন।

মহান আল্লাহ, তায়ালার ইবাদাতের মাস রমজান। মানসিক বল এবং শারীরিক সক্ষমতা থাকলেই রোযা আপনার জন্য শ্রেয়।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

মন্তব্য করুন